আশুলিয়ায় ডিবির অভিযান ।। ডাকাত দলের ৭ সদস্য আটক

সকাল বিডি ডেস্কঃ সোমবার ভোর রাতে রাজধানীর আশুলিয়া থানার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে আন্তঃ জেলা ডাকাত দলের ৭ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা (উত্তর) জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। মঙ্গলবার দুপরে তাদের আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

সম্প্রতি আশুলিয়ার বাইপাইল ব্রীজ সংলগ্ন নামাবাজারে চাঞ্চল্যকর ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাদেরকে আটক করা হয়। তবে গ্রেফতারকৃত আসামীরা ডাকাতির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ স্বীকার করলেও ওই ঘটনায় লুট হওয়া মালামাল ও নগদ টাকা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি বলে জানায় পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হল, বরিশাল জেলাধীন আগৈলঝরা থানার মৃত প্রভুদান সরকারের ছেলে পলাশ সরকার (২৬), বগুড়া জেলাধীন শাহজাহানপুর থানার মৃত হারুন অর রশিদের ছেলে মামুন (৩৩), হবিগঞ্জ জেলাধীন চুনারঘাট থানার আব্দুল কাইয়ুমের ছেলে জহিরুল ইসলাম সানী (২৬), ঢাকা জেলাধীন ধামরাই থানার মৃত রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে জাকির হোসেন (৩০), একই জেলার আশুলিয়া থানার মৃত দেলোয়ার হোসেনের ছেলে জামান (৩১), বাগেরহাট জেলাধীন কচুয়া থানার হাবিবুর রহমান মৃধার ছেলে নাসির উদ্দিন মৃধা (২৭) এবং মানিকগঞ্জ জেলাধীন দৌলতপুর থানার বাসিন্দা শামসুল হকের ছেলে জহিরুল ইসলাম ওরফে জাহাদ আলী (২৫)।

ঢাকা জেলা (উত্তর) গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক কাওসার সুলতান জানান, গ্রেফতারকৃতরা সবাই আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। তারা দীর্ঘদিন ধরে আশুলিয়া সহ বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতি করে আসছিল। সম্প্রতি, গত ৩রা নভেম্বর রাতে বাইপাইল এর নামাবাজারের ফাল্গুনী জুয়েলারীর ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হলে কিছু দূর যেতেই সংগবদ্ধ ডাকাতরা তাদের উপর হামলা করে। এ সময় তাদের কাছে থাকা ৫ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ২ লাখ ৭০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় ডাকাতরা। ঘটনার সময় তারা ৮/১০ টি ককটেল ফাটিয়ে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করে এবং ব্যবসায়ী গৌরাঙ্গকে এলোপাথারি ছুরিকাঘাত করে আহত করে। এ ঘটনায় পরবর্তীতে আশুলিয়া থানায় মামলা করে আহতের ভাই বাদল চন্দ্র সরকার।
গ্রেফতারকৃত আসামীরা আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে বলেও জানান তিনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।