চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে পোষাক শ্রমিককে গনধর্ষনের অভিযোগ ।। আটক ২

স্টাফ রিপোর্টারঃ চাকুরী দেবার প্রলোভন দেখিয়ে এক নারী পোশাক শ্রমিককে গনধর্ষনের অভিযোগে ২ জনকে আটক করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে আশুলিয়ার বড় রাঙ্গামাটিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো- আশুলিয়া থানাধীন বড় রাঙ্গামাটিয়া গ্রামের মাইন উদ্দিনের ছেলে মিজানুর রহমান (৩০), ও পার্শবর্তী ধামরাই থানার কামারপাড়া গ্রামের বদর উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (২৯)। আটককৃতদের বুধবার দুপুরে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীর পরিবার সুত্রে জানা যায়, নাটোর জেলার গুরুদাসপুর থানার নয়াবাজার গ্রামের পোষাক শ্রমিক ইউসুফ আলী তার স্ত্রীকে নিয়ে আশুলিয়ার বড় রাঙ্গামাটি এলাকায় জনৈক সাগরের বাড়ীতে বসবাস করতেন। তিনি স্থানীয় একটি পোষাক কারখানায় চাকুরী করেন। তবে তার স্ত্রী গত কয়েক মাস ধরে বেকার থাকায় বিভিন্ন কারখানায় চাকুরীর খোঁজ করছিলেন। গত মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে সোহেল নামের একজন তার স্ত্রীকে চাকুরী দেয়ার কথা বলে পার্শবর্তী মাইন উদ্দিনের বাড়ীতে ডেকে নিয়ে যায়।

ওই বাড়ীর একটি কক্ষে বাড়ীর মালিকের ছেলে অভিযুক্ত মিজানুর রহমান, দেলোয়ার ও আব্দুর রাজ্জাক আগে থেকেই অবস্থান করছিলো। পুর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বাড়ীর একটি কক্ষে ওই পোষাক শ্রমিককে জোর পুর্বক পালা ক্রমে ধর্ষন করে অভিযুক্তরা। দুপুরে ধর্ষনের বিষয়টি গোপন রাখার শর্ত দিয়ে ওই নারীকে ছেড়ে দেয় তারা। পরে বিষয়টি ওই নারী তার স্বামী ইউসুফ আলীকে অবহিত করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ বলেন, ভুক্তভোগী পোশাক শ্রমিকের অভিযোগের ভিত্তিতে বড় রাঙ্গামাটি এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অপরাধে ২ জনকে রাতেই আটক করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। এছাড়া বাঁকীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তিনি আরও জানান, আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সময় চেয়ে বুধবার দুপুরে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।