ঢাবির বাসে হামলাই রাজু ভাস্কর্যে মানববন্ধন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি):ঈশা খাঁ ও ক্ষণিকা বাসে হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু)। বৃহস্প্রতিবার দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে তারা এই মানববন্ধন হয়।

এ সময় ডাকসু নেতারা বাস হামলার সাথে যারা জড়িত তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। একই সাথে ভবিষ্যতে যাতে এরকম কর্মকাণ্ড আর না ঘটে সেজন্য তারা শ্রমিকদের হুঁশিয়ারি দেন। ভবিষ্যতে এরকম হামলার কর্মকাণ্ড ঘটলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কঠোর থেকে কঠোর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবেন বলে তারা জানান।

এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, আন্দোলন মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার। আমরা ছাত্ররা যখন নিরাপদ সড়ক আন্দোলন করেছি আমরা তো কখনও বাসের কাঁচ ভাঙ্গিনি, মানুষের মুখে মবিল বা কালি মেখে দেয়নি। শ্রমিকদের যদি স্বার্থে আঘাত লাগে তারা আন্দোলন করতে পারে কিন্তু সেখানে কেন সাধারণ মানুষের মুখে কালি মেখে দিতে হবে। কেন গাড়িতে কালি মেখে দিতে হবে। কেন গাড়ির উপর ভাঙচুর করতে হবে। এটি কোন আন্দোলন নয় এটি একটি নৈরাজ্য ও উস্কানিমূলক আন্দোলন। আমরা জানি, এ পরিবহন সেক্টর কে কারা উস্কিয়ে দেয়। অনেকে নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য, সরকারকে একটি মেসেজ দেয়ার জন্য তারা এ শ্রমিকদের রাস্তায় নামায়। সরকার যেন তাদের স্বার্থ রক্ষা করে।

পরিবহন সম্পাদক শামস ঈ নোমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের উপর হামলা করা মানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যের উপর হামলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩ হাজার শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করা। আমরা এই হামলার তীব্র নিন্দা জানাই এবং যারা এই হামলা ঘটিয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। একই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে আহ্বান জানাচ্ছি, এই হামলায় যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ অতিশীঘ্রই গ্রহণ করুন।

এদিকে মানববন্ধনের পর ডাকসু নেতৃবৃন্দ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান এর সাথে সাক্ষাৎ করে হামলার সাথে জড়িতদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি হামলায় সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। এ বিষয়ে আখতারুজ্জামান বলেন, ‘আমি গত কালকে বলেছি আজকেও বলছি যারা এই হামলার সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আমরা যেখানে ঘটনা ঘটেছে ওই থানায় মামলা করব।’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।