বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণ, চিঠি লিখে আত্মহত্যা

বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণ, চিঠি লিখে আত্মহত্যা

রিপোর্টার: মোঃ সবুজ হোসেন:

বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ডেকে নিয়ে রাতভর গণধর্ষণের পর হুমকি দেয়ায় পাবনার সুজানগর উপজেলার মালিফা কলেজের প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। আত্মহননের আগে কলেজ ছাত্রী মুর্শিদা খাতুন তার মৃত্যুর জন্য ৩ জনকে দায়ী করে একটি চিঠি লিখে রেখে গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, সুজানগরের হাটখালি ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের মোসলেম খার মেয়ে এবং মালিফা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী মুুর্শিদা খাতুন। তাকে প্রেমিক কাশিনাথপুর এলাকার ছবেদ মিয়ার ছেলে ছবদুল খান বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে স্থানীয়রা ছবদুল খান এর মামাতো ভাই নুরুল ইসলামের সহযোগিতায় মুুর্শিদা খাতুনকে রাতভর পালাক্রমে কতিপয় ব্যক্তি ধর্ষণ করে।

এ ঘটনা গত বৃহস্পতিবার রাতে কাশিনাথপুর মহিলা কলেজের পাশে। পরে সেখান থেকে ছবদুলের মামাতো ভাই নুরুল ইসলাম তার স্ত্রী ঝর্ণা খাতুনের সহযোগিতায় তার বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মেয়েটি কে বিভিন্ন ওষুধ খাইয়ে মুর্শিদাকে ঘটনা ধাপা চাপা রাখার জন্য নানা ধরণের হুমকি দিলে মুর্শিদা খাতুন বাড়ি ফিরে বিষ পান করে। তাকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাজশাহী রেফার্ড করা হয়। এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

মঙ্গলবার সকালে লাশের ময়নাতদন্ত চলছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।