বোরহানউদ্দিনে বসতঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পৃথক হামলায় আহত- ৮

মোঃ সজিব, বিশেষ প্রতিনিধি ভোলাঃ ভোলার বোরহানউদ্দিনে জমি-জমা নিয়ে পৃথক হামলার ঘটনায় অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে কেউ কেউ হাসপাতালে ভর্তি ও প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। দুটি ঘনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পৃথক দুটি ঘটনা ঘটেছে শনিবার সকালে উপজেলার পক্ষিয়া ও টবগী ইউনিয়নে।
টবগী ইউনিয়নের রাস্তার মাথা নামক স্থানে হামলা সম্পর্কে আহত তোতা মিয়া জানান, তিনি দীর্ঘ ৩৫ বছর পর্যন্ত রাস্তার মাথার একটি দোকান মালিক। আজ সকালে সে ওই দোকান ঘরের মেরামত করতে গেলে তার প্রতিপক্ষ ওই এলাকার মৃত ইয়াছিন মিয়ার ছেলে আইয়ুব রুমি,আরজু মিয়া সহ তার দলবল নিয়ে তোতা মিয়ার ঘর মেরামতে বাাঁধা দেয়। এর পর কথা কাটা কাটির এক পর্যায়ে রুমি তার দলবল নিয়ে তোতা মিয়ার উপর হামলা চালিয়ে তোতা মিয়ার হাতে কোপ দেয়। তোতা মিয়া বর্তমানে বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি আছে। হামলার ঘটনায় প্রতিপক্ষ আইয়ুব আলী জানান, তোতা মিয়া অবৈধ ভাবে তার জমি দখল করে আছেন।
অপরদিকে পক্ষিয়া ইউনিয়নে বসত ঘরে হামলার ঘটনায় ভুক্তভোগী হানিফ মিয়া জানান, তিনি তার প্রতিপক্ষ মিলন মিয়ার কাছ থেকে ৮  শতাংশ জমি ১ লক্ষ দশ হাজার ক্রয় করার জন্য ১ লক্ষ টাকা বায়না করেন। দীর্ঘ দিন দলিল দেয়ার কথা বলে ঘুরাতে থাকে মিলন মিয়া। এতে হানিফ মিয়া মিলনকে দলিল দেয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে উভয় পক্ষের মধ্যে কয়েক বার মনোমালিন্য হয়। এরই ধারাবাহিকতায়  ক্ষিপ্ত হয়ে মিলন মিয়া শনিবার সকালে রাজু-২৫, রাশেদ-২২, শাহজাহান ৫৫, শাহজাহান, বাচ্চু, গনি, জলিল সহ একদল লোক তার  বসত ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে ঘরের মালপত্র ও টাকা পয়সা লুট করে নিয়ে যায়। এ সময়  মিলন মিয়ার লোকজনের হামলায় শামীম-১৮, সারমিন-২৫, হানিফ-৫০ ,রানু-৪০ আহত হয়। এ ব্যাপারে মিলন মিয়ার লোকজন জানান, দীর্ঘ দিন থেকে হানিফের ঘরে অবৈধ কার্য কলাপ চলে আসছে এতে আমরা বাঁধা দিলে হানিফ তার লোকজন নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। হামলায় তাদের ৩ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছে।
বোরহানউদ্দিন থানার ওসি এনামূল হক জানায়, উভয় ঘটনায় পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।