ভোলায় মা ইলিশ অপহরণের অপরাধে ১৭ জেলের কারাদণ্ড

মোঃ সজিব, বিশেষ প্রতিনিধি ভোলাঃ উপকূলীয় দ্বীপজেলা ভোলায় মা ইলিশ ধরায় ১৭ জেলেকে আটক করা হয়েছে। রবিবার ভোর রাত থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ভোলার মেঘনা-তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় আটককৃতদের কাছ থেকে ১টি স্টীলের বোট, ৪ লাখ ৬ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ৪৮ কেটি মা ইলিশ উদ্ধার করা হয়। আটককৃতদের প্রত্যেককে ১ বছর করে কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।
সূত্রে জানা যায়, মা ইলিশ রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে জেলা প্রশাসন। মৎস্য অধিদপ্তর, কোষ্টগার্ড, নৌ-পুলিশ, পুলিশের যৌথ অভিযানে প্রতিদিনই ভোলার মেঘনা-তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান পরিচালনা করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় কোষ্টগার্ড দক্ষিণ জোনের ভোলা বেইসের ৩টি অপারেশন দল ভোলার মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীর ইলিশাঘাট, তুলাতুলি, ভেদুরিয়া, ভেলুমিয়া, হাজিরহাট ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৬ হাজার মিটার কারেন্ট জাল, ৪৮ কেজি ইলিশ মাছসহ ১০ জন জেলে আটক করে। আটককৃত জেলেদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিকট হস্তান্তর করা হয়। ভোলা সদর মৎস্য কর্মকর্তা ও সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে জাল পুড়িয়ে ফেলা হয় এবং ইলিশ মাছ গরীব ও এতিমদের মাঝে বিতরণ করা হয়।
ভোলা সদর মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের দায়িত্বে থাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন সন্ধ্যায় দৈনিক ভোলার বাণীকে বলেন, আটককৃত প্রত্যেক জেলেকে ১ বছর করে কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।
এছাড়াও বিসিজি আউটপোস্ট লালমোহন পৃথক অভিযান পরিচালনা করে ৭ জন জেলেকে নদীতে মাছ ধরা অবস্থায় আটক করে ও বিসিজি স্টেশান হিজলা নদীতে টহলরত অবস্থায় একটি ইঞ্জিনচালিত স্টীলের বোটসহ ৪ লাখ মিটার নতুন কারেন্ট জাল আটক করে। আটককৃত জাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে পুড়িয়ে ফেলা হয় এবং জেলেদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিকট হস্তান্তর করা হয়।
লালমোহন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অনিক রহমান এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সন্ধ্যায় সংবাদ কর্মীদের বলেনঃ- আটককৃত প্রত্যেক জেলেকে ১ বছর করে কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।
অন্যদিকে মৎস্য সম্পদ রক্ষায় কোস্ট গার্ডের এই অভিযান চলমান আছে এবং ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে বলে জানান জোনাল কমান্ডারের পক্ষে লেঃ কমান্ডার বিএন নুরুজ্জামান শেখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।