মতলবে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ৪ পুলিশসহ আহত ২০ ৮০ রাউন্ড গুলি নিক্ষেপ এলাকা পুরুষ শূন্য

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামে আধিপত্যকে বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষ্যের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে উভয়পক্ষে অন্তত ১৬ গ্রামবাসী আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রায় ৮০ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পুলিশ। এ সময় পুলিশের ৪ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে ইউপি সদস্য বাবুল মিয়ার মামাতো ভাই আলীর বৌভাত অনুষ্ঠানে রাজ্জাক প্রধান গংদের সাথে বাবুল মেম্বারের লোকজনের কথাকাটি হয়।
এরই সূত্রধরে রাজ্জাক প্রধানের নেতৃত্বে কাইল্লা, নুরু, কালু, বাবলু গংরা পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী লাঠি, সোটা, সাবল নিয়ে বারেক বেপারী, আহাম্মদ হোসেন, জালাল বেপারী, দুলাল বেপারী, শহিদ, মোহাম্মদ হোসেন, আক্তার হোসেনের বসত ঘরে হামলা করে ভাংচুর করে।

খবর পেয়ে বাবুল মেম্বারের লোকজন পাল্টা আক্রমণ করার চেষ্টা করলে জাহাঙ্গীর বেপারী, দুলাল বেপারী, শুক্কুর আলী, আক্তার হোসেন, আনোয়ার, মফিজুল ইসলাম’সহ ১৬জন আহত হয়। আহতদের ছেংগারচর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’সহ বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

খবর পেয়ে মতলব উত্তর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই গোলাম মোস্তফা, এসআই জসিম-১, এসআই জসিম-২ এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার লক্ষ্যে উভয়পক্ষের সাথে আলাপ আলোচনা করার একপর্যায়ে রাজ্জাক প্রধানের লোকজন পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে এসআই জসিম-১, এএসআই আফজাল, কনস্টেবল জহির’সহ ৪জন আহত হয়। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য ৮০ রাউন্ড গুলি ছুড়ে। এতে কেউ হতাহত হয়নি বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

 

প্রকাশ তানজির আহম্মেদ সানি তপদার

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।