মাতৃ ইলিশ শিকারে ভোলা ভেদুরিয়া থেকে আজ শুক্রবার আবারো ছাত্র সহ ১৯ জন আটক।

মাতৃ ইলিশ শিকারে ভোলা ভেদুরিয়া থেকে আজ শুক্রবার আবারো ছাত্র সহ ১৯ জন আটক।

মো.সাইফুল ইসলাম#ভোলা: ভোলায় মৎস অভিজানের আর মাত্র ২ দিন বাকি।আগামী রবিবার শেষ হবে এই অভিজান।শেষ মূহুর্তে আজ মৎস শিকার করে ১৯ জেলে আটক হয়েছে। অদ্ভুদ বিষয় হল_তার মধ্যে ৫ জন কলেজ ও স্কুল ছাত্র ছিল।ভোলায় এপর্যন্ত মৎস শিকারের অভিযোগে আটকের সংখ্যা ৩০০ এর উপরে। ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা-ইলিশ রক্ষায় ভোলার মেঘনা-তেতুলিয়া নদীতে ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত সকল ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু আইন উপেক্ষা করে আজ শুক্রবার রাত ৪ টার সময় ১৯ জন জেলে ভোলা_ভেদুরিয়া তেতুলিয়া নদীতে বেআইনি ভাবে মাছ ধরতে যায়। তখন ডিউটিরত ভ্রাম্মমান কোষ্টগার্ড ও নৌপুলিশের হাতে (ভোর রাতে) ধরা পরে। তাদের কে অনেক কারেন্ট জাল ও মাছ সহ জব্দ করা হয়। ঘাটে পৌছে কারেন্ট জালে আগুনে পুরিয়ে দেওয়া হয়।পরে জব্দকৃত মাছ গরিবদের মাঝে বিতরন করে দেওয়া হয়। পরে তাদের কে দুটি গাড়িতে করে থানায় পাঠানো হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেড ছাত্রদের ভবিষ্যত চিন্তা করে তাদের কে কে অর্থদন্ড করেন এবং মুক্তি দান করেন। আর বাকি যারা পেশায় জেলে তাদের বিনাশ্রম ১ বছরের কারাদন্ড দেয়।ছাত্ররা জানায়_টাকার অভাবে তাদের এ পন্থা বেছে নিতে হয়েছে।তারা ভোলা উপজলার ভেলুমিয়া ইউনিয়নে বাস করে এবং সেখানে কলেজে তারা পরাশুনা করত । পরে কোষ্টগার্ডের কর্মকর্তারা জানান ২ দিন কেন? ১দিন বাকি থাকলেও তাদের অভিজানের কোন নড়চড় হবে না। তারা তাদের কর্তব্য পালন করে যাবে। কিন্তু এখানে ন্যাক্কারজনক বিষয় টি হল শেষপর্যন্ত ছাত্ররা টাকার অভাবে এই বেআইনি পথ বেছে নিলো।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।