কালিয়াকৈরে ৪০দিনের কর্মসূচিতে জনপ্রতিনিধির অনিয়ম

কালিয়াকৈর সংবাদ প্রতিনিধি :-
গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর উপজেলার ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের জাথালিয়া গ্রামের ইউ পি সদস্য মোসাঃলাকি আক্তার তিনি ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা সংরক্ষিত ইউপি সদস্য হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত আছেন, জাথালিয়া উচ্চ বিদ্যালয় হতে সাদুল্লাপুর এলাকার বাজার পর্যন্ত কাঁচা রাস্তার মেরামতের জন্য ৮৭জন লেবারে মধ্য দিয়ে ৪০দিনের কর্মসূচির দায়িত্বপ্রাপ্ত হন। যেখানে সরকারি বিধি মোতাবেক ৮৭ জন শ্রমিক ধারা ৪০দিনে যতটুক রাস্তা মেরামতের কাজ সম্পন্ন করা যায় ইউপি সদস্য লাকি আক্তার, এখানে তার অনিয়ম ও ব্যর্থতার কথা উঠে এসেছে। তিনি উক্ত রাস্তায় লেবার সংখ্যা কম খাটিয়ে রাস্তা মেরামত করিতেছে বলে জানা যায়। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায় মাত্র ৩৫ থেকে ৪০জন লেবার খাটিয়ে তিনি রাস্তার কাজ সম্পন্ন করার পায়তারা করছে। আরও জানা যায় যে শিশুশ্রম ও মানসিক রোগী রাস্তায় কাজে খাটিয়ে তাদেরকে লেবার সাজিয়ে লেবারের সংখ্যা বৃদ্ধির পায়তারা করছে স্থানীয় এলাকাবাসীর দাবি লেবার সংখ্যা কম খাটানোর কারণে উক্ত রাস্তা যথারীতি কাজ অসম্পূর্ণ থেকে যাবে। এমনকি তাহাদের রাস্তার যতটুকু কাজ হওয়ার কথা তা থেকে অসম্পন্ন থাকবে। এ বিষয়ে ইউপি সদস্য লাকি আক্তারের সাথে কথা বলে জানা যায় যে তিনি অনেক খোঁজাখুঁজি করেও লেভারের সংখ্যা বাড়াতে পারেননি। এমতঅবস্থায় ৩৫থেকে ৪০ জন লেবার( শ্রমিক) ধারা তার কাজ চালিয়ে নিচ্ছে, শিশুশ্রম বিষয়টি তার সামনে উদঘাটন করলে তিনি তার বিভিন্ন অজুহাত দেখান। এলাকার স্থানীয় মানসিক রোগী মুক্তার আলি তাকে দিয়েও লেবার সংখ্যা বাড়ানোর জন্য কাজে দেখানোর চেষ্টা করেন লাকি আক্তার। এ বিষয়ে ৬ নং ওয়ার্ডের স্থানীয় মেম্বার সাইফুল ইসলামের সাথে কথা বলে জানা যায় যে রাস্তার লেবার অসমাপ্ত রেখে রাস্তার কাজ করানোর কোন নিয়ম নেই । স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল কাদের সাথে কথা বললে তিনি বলেন লেবার সংখ্যা কম থাকায় রাস্তার কাজটি যথারীতি সম্পন্ন হবে না, সরকারিভাবে একটি রাস্তার কাজ বারবার পাওয়া যায় না সেই ক্ষেত্রে সরকারি বিধি মোতাবেক যেভাবে কাজ পরিচালনা করার কথা সেইভাবে কাজটি করলে এলাকার জনগণ সরকারি সহযোগিতা সঠিকভাবে পাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। ইউপি সদস্য লাকি আক্তারের স্বামী জাকির হোসেনের সাথে শিশুশ্রম লেবার কম এসকল বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন যথারীতি চেষ্টা করেও লেবার বাড়ানো যাচ্ছে না তবে লেবার বাড়ানোর ক্ষেত্রে তিনি যথারীতি চেষ্টা করছেন শিশুশ্রমের লোক ধারা কার্যক্রম হলেও সেটা এখন বন্ধ করে দিয়েছেন বলে জানান।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।