পাংশায় জমি নিয়ে মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

রাজবাড়ী প্রতিনিধি ঃ

রাজবাড়ী জেলার পাংশা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের নারায়নপুরের বাসিন্দা প্রফেসর আবু মুসার নামে, বিভিন্ন গণমাধ্যমে ভূমিদস্যু আখ্যায়িত করে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রচার করায়, এই মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন ও তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন প্রফেসর আবু মুসার পরিবার।

আজ রবিবার ২৫শে সেপ্টেম্বর বিকাল ৪ ঘটিকার সময় পাংশা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের দ্বিতীয় তলায় পাংশা প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পাংশা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও এশিয়ান টেলিভিশনের রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি, এস এম রাসেল কবির সহ বিভিন্ন ইলেকট্রিক, প্রিন্ট এবং অনলাইন মিডিয়ার সংবাদকর্মীগণ।

সংবাদ সম্মেলনে কালুখালী উপজেলার মৃগী ইউনিয়নের মৃগী শহীদ দিয়ানত কলেজের সহকারি অধ্যাপক মোঃ আবু মুসা লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। লিখিত বক্তব্যে মোঃ আবু মুসা বলেন- গত ১৫ অক্টোবর ও ২২ অক্টোবরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে জমি দখল ও রাজনৈতিক দলগত অবস্থান নিয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পুর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া ও ভিত্তিহীন আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। পাংশা থানার বাবুপাড়া ইউনিয়নের সুজানগর গ্রামের ভূমিদস্যু জয়নাল মিয়া ও আবু বকর মিয়া ও শাহাদৎ আজাদ গং এর একটি কুচক্রীমহল আমাদের ৫৬ বছরের বসতবাড়ী ও বাড়ী সংলগ্ন জমির জাল কাগজ তৈরি করে আমাদেরকে হয়রানী করছে। এই ভূমিদস্যু কুচক্রীমহল পাংশায় বসবাসকারী অনেককেই হয়রানী করছে, এটি তাদের পেশায় পরিনত হয়েছে। ইতিপূর্বে জয়নাল গং আমাদের জমিগুলো নামজারি করার জন্য পাংশা ভূমি অফিসে আবেদন করলে তাদের কাগজ জাল প্রমাণিত হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মহোদয় তাদের নামজারির আবেদন বাতিল করেন। পরবর্তিতে সেই জমি আমাদের নামে নামজারি হয়। বর্তমানে আবারো তারা আমাদের বসতবাড়ী ও বাগানের জমির নামজারির আবেদন করেছে। গত ১২ অক্টোবর-২০২০ ইং তারিখে আমার বসতবাড়ী ও বাগানের জমির ভূমি অফিসে শুনানি হয়েছে, শুনানিতে আমাদেরকে লিখিত জবাব দিতে বলা হয়। এরই মধ্যে গত ১৩ অক্টোবর রাতের আঁধারে ভূমিদস্যু জয়নাল আবেদিন গং অতর্কিত ভাবে আমাদের বাড়ী এবং বাড়ী সংলগ্ন জমির উপরে সাইনবোর্ড লাগিয়েছে। সাইনবোর্ডে লেখা থাকে যে, তারা এই জমি নিলাম সূত্রে ক্রয় করেছে। ঠিক ওই মূহুর্তে আমরা পাংশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি সঙ্গে সঙ্গে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করেন।

এ বিষয়ে পাংশা পৌর কাউন্সিলর, পৌর মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা প্রশাসক রাজবাড়ী মহোদয়কে অবগত করা হয়েছে। রাজবাড়ী ২ আসনের বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিমকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে। রাজনৈতিক ভাবে আমরা এমপি মহোদয়ের সাথে ছিলাম, আছি, থাকবো। পরিশেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট ভূমিদস্যু জয়নাল আবেদিন গং এর হাত থেকে আমাদের বসত ভিটা রক্ষা পেতে ও প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহনে বিনিত ভাবে অনুরোধ জানান ঐ সহকারি অধ্যাপক মোঃ আবু মুসা ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।