ময়লার গাড়িতে গন্তব্যে ছুটছেন কর্মজীবীরা

পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটের কারণে দুর্ভোগে পড়েছেন অফিসগামী কর্মজীবী মানুষ ও স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা। বিকল্প উপায় হিসেবে মানুষ রিকশা-ভ্যান, মোটরসাইকেল ও সিএনজি অটোরিকশায় উঠছেন।

জন্য গুনতে হচ্ছে বাড়তি টাকা। এটা দিতে পারছেন না তারা তাই তারা পায়ে হেঁটেই গন্তব্যে রওনা হচ্ছেন।

আর এস মানুষের মধ্যে কিছু মানুষ নাক চেপে আকুতি মিনতি করে উঠলো পাশ দিয়ে যাওয়া সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়িতে।
অবশ্যই এটা অবাক করা ঘটনা। যে ময়লার গাড়ি পাশ দিয়ে গেলে নাকে রুমাল দিয়ে চলতো হতো, নিরুপায় মানুষকে আজ নাক চেপে সেই গাড়িতেই চড়ে অফিস যেতে দেখা যায়। তারপরও এটা এসব মানুষের কাছে কষ্টের মধ্যেও যেন কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছে। রবিবার সকালে ঢাকার রাস্তায় ময়লার গাতিে চড়ে অফিস যাওয়ার এমন বেশ কিছু ছবি ইতোমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে। আর এতে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে মানুষের ভোগান্তি কোথায় গিয়ে পৌঁছেছে।
প্রসঙ্গত, সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা বাতিলসহ ৮ দফা দাবিতে সারাদেশে শ্রমিকদের ডাকা টানা ৪৮ ঘণ্টার কর্মবিরতি শুরু হয়েছে।
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ডাকে আজ রবিবার ভোর ছয়টা থেকে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি চলবে মঙ্গলবার ভোর ছয়টা পর্যন্ত। ফলে রবিবার সকাল থেকে রাজধানীতে গণপরিবহন প্রায় শূন্য হয়ে পড়ে। এমনকি কোনো রুটে প্রাইভেট গাড়ি চলতেও বাধা দেওয়া হচ্ছে।

মিরপুরে সকাল ৯টার দিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিআরটিসি ও বিভিন্ন কোম্পানির বাস এবং প্রাইভেটকারসহ কয়েকশ’ গাড়ি সড়কে দাঁড়িয়ে রয়েছে। গণপরিবহন না হলেও এসব বাসগুলোকে আটকে দিয়েছে পরিবহন শ্রমিকরা। একটি পর্যায়ে পুলিশ আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলে প্রাইভেট গাড়িগুলো ছেড়ে দিতে সক্ষম হয়।

তবে একটিবিআরটিসি বাস মিরপুর-১ নম্বর অতিক্রম করতে গেলেই শ্রমিকদের রোষানলে পড়ে। পরে বাধ্য হয়ে সব যাত্রীকে নামিয়ে দেন চালক।

রিপোর্টার তানজির আহম্মেদ সানি তপদার

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।