শিমরাইল মোড়ে প্রধানমন্ত্রীর পিএসের গাড়ি আটকে দিল শ্রমিকরা

সড়ক আইন সংশোধন করে পঞ্চম শ্রেণিতেই লাইসেন্স, মামলা জামিনযোগ্য করাসহ ৮ দফা দাবিতে সারা দেশে ধর্মঘট পালন করছে পরিবহন শ্রমিকরা। আজ রবিবার সকাল থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড থেকে কাঁচপুর মোড় পর্যন্ত তারা প্রায় ১০টি স্পটে অবস্থান নেয়।
পরিবহন শ্রমিকরা কোন ধরনের যানবাহন চলাচল করতে দিচ্ছেন না। রবিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে শিমরাইল মোড়ে প্রধানমন্ত্রীর পিএস সাজ্জাদুল হাসানের গাড়ি আটকে দেয় পরিবহন শ্রমিকরা। প্রায় আধা ঘণ্টা পর নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের টিআই (প্রশাসন) মোল্লা তাসলিম হোসেন শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা করে গাড়িটি উদ্ধারে সক্ষম হন।

দফা দাবিতে ৪৮ ঘণ্টার ধর্মঘট ডেকেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন। শনিবার বিকালে সংগঠনটির সভাপতি ওয়াজিউদ্দিন খান ও সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে চলা শ্রমিক সমাবেশ থেকেও এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

শ্রমিক ফেডারেশনের দাবি, সড়ক পরিবহন আইনে শ্রমিক স্বার্থ রক্ষা ও পরিপন্থী উভয় ধারা রয়েছে। এ ছাড়া সড়ক দুর্ঘটনাকে দুর্ঘটনা হিসেবে গণ্য না করে, অপরাধ হিসেবে গণ্য করে আইন পাস করা হয়েছে। আইনে শ্রমিকরা সড়ক দুর্ঘটনা মামলায় অপরাধী হয়ে ফাঁসির ঝুঁকিতে রয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।