সোনারগাঁয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ,থানায় মামলা, ধর্ষক পলাতক

সোনারগাঁয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ,থানায় মামলা, ধর্ষক পলাতক

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে সাদিপুর ইউনিয়নের ভারগাঁও এলাকার বাটপাড়া গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শুক্রবার রাতে বাটপাড়া এলাকার এক নির্জন বাগানে এ ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্রীকে পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদি হয়ে শনিবার দুুপুরে সোনারগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক পলাতক রয়েছে।

সোনারগাঁও থানায় দায়ের করা এজহারে ওই ছাত্রী উল্লেখ করেন, উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের ভারগাঁও নেছারিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ৭ম শ্রেণীতে পড়াশোনা করে। দীর্ঘদিন ধরে ভারগাঁও বাটপাড়া গ্রামের গিয়াসউদ্দিনের ছেলে শফিকুল ইসলাম মাদ্রাসায় যাওয়া আসার পথে তাকে উক্তত্য করে প্রেমের প্রস্তাব দিতো। এক পর্যায়ে হুমকি ধামকি দেওয়ায় ভয়ে প্রেমে রাজি হয় ওই ছাত্রী। পরে শফিকুলের সাথে ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। শুক্রবার রাত পৌনে নয়টার দিকে শফিকুল আমার সাথে কথা আছে বলে একই এলাকার নুরু সরকারের লেবু বাগানে নিয়ে যায়। এসময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে মুখে ওড়না পেচিয়ে ধর্ষণ করে। ওই ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ধর্ষক শফিকুল পালিয়ে যায়। পরে ওই ছাত্রী তার বাবা মাকে বিষয়টি জানালে শফিকুলের বাড়িতে গিয়ে বিচার দাবী করে ওই ছাত্রীর পরিবার। এসময় ওই ছাত্রীর পরিবারকে হত্যার হুমকি দেয় শফিকুলের পরিবার। এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে একটি মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর ধর্ষক শফিকুল এলাকা থেকে পালিয়ে যায়।

সোনারগাঁও থানার ওসি মোরশেদ আলম পিপিএম জানান, এ ঘটনায় মামলা গ্রহন করা হয়েছে। আসামীকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।