প্রায় অর্ধশত মামলার আসামী হলেন মাসুকুল ইসলাম রাজিব

নারায়নগঞ্জ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব, এডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন সহ ৪০ জনের বিরুদ্ধে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র ও নাশকতার মামলা দায়ের করা হয়েছে নতুন করে।
নতুন এ মামলাসহ জেলা বিএনপির এ মূখপাত্রের নামে মামলা দায়ের করা হলো এ পর্যন্ত মোট ৩৬ টি।

এ বিষয়ে আজ মাসুকুল ইসলাম রাজিব তার ফেইসবুক ওয়ালে একটি বিবৃতিমূলক পোস্ট প্রদান করেন।
তিনি উক্ত বিবৃতিতে লেখেন,
মামলা হামলা এগুলো আসলে বিষয় না। ৩৫ এর জায়গায় ৩৬ হলো কারো ৫০। বিষয়টা হলো আমরা যারা বিরোধি মতবাদের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত তারা কোন শ্রেনির নাগরিক?১ম,২য়,৩য়,৪র্থ­ শুনেছি কিন্তু আমার মনে হয় আমরা নতুন এক শ্রেনিতে উপনিত হয়েছি সেটা হলো ৫ম শ্রেনি।যাদের উপর যখন যা খুশি অপবাদ,জুলুম,নির্যাতন­, গুম,হত্যা, মামলা করা যাবে কারন এরা কারো সন্তান নয়,এরা কারো স্বামী নয়,এরা কারো পিতা নয়,এরা কারো বন্ধু বা আত্নীয় নয়,এরা সমাজের নয়,এরা এ দেশের নয়, এরা শুধুই অপরাধী।
নতুন পুলিশ সুপার এসে বলেছিলেন এবং নির্দেশ দিয়েছিলেন কোন নিরপরাধ ব্যক্তি যাতে পুলিশের দ্বারা অন্যায়ের স্বীকার না হয় আশাবাদী হয়েছিলাম কারন উনি ত আর আমাদের মত রাজনীতিবিদ নন কিন্তু কাজে দেখলাম পুরোই উল্টো করছে উনার বাহিনী। নির্দেশের পর পরই প্রতি থানায় ভুতুরে মামলা শুরু যা বিগত দিনের সকল মিথ্যার রেকর্ড কে ছাড়িয়ে নতুন এক উচ্চতায় পৌছে গেছে।
যে অন্যায় বা জুলুম আমাদের উপর বিনা কারনে করা হচ্ছে হয়ত আমরা এর জবাব দিতে পারবোনা কারন আমরা যে ৫ম শ্রেনির কিন্তু উপর আল্লাহ র কাছে এর জবাব ই নয় শুধু কঠিন বিচারের মুখোমুখি ও শাস্তি পেতে হবে এটা যেন কেউ ভুলে না যাই।
আর সরকার দলীয় রাজনীতিবিদ রা যারা এই অন্যায় করাচ্ছেন বা দেখেও না দেখার ভান করছেন বা সমর্থন করছেন ভুলে যেয়েন না যে আপনিও রাজনীতিবিদ হয়ত কোন এক দিন আপনিও নতুন এক শ্রেনিতে উপনিত হতে পারেন।

মাসুকুল ইসলাম রাজিব ও এডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন সহ ৪০ জনকে আসামী করে মামলা দায়েরের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি ও বিভিন্ন থানা পর্যায়ের বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, সেচ্ছাসেবকদল সহ সকল নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।