ফেরারী জীবন পার করছে সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা

সোনারগাঁয়ের সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীরা হামলা মামলার কারণে ঘর ছেড়ে বর্তমানে নিরুদ্দেশ ফেরারী জীবন যাপন করছেন।
পুলিশি মামলার কারণে গ্রেপ্তার এড়াতে যথা সম্ভব বসতবাড়ি ও এলাকা থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন সকলেই।
প্রত্যেকেই বিরুদ্ধেই সোনারগাঁ  থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। 
সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামরুজ্জামান মাসুম এর নামেই ৩ টি মামলা রয়েছে যার ফলে তিনি নিজ বাসা ও ঘর ছেড়ে বর্তমানে কোথায় নিরুদ্দেশ তা জানেন না তার ঘনিষ্ঠজন সহ আরো অনেকেই।
অন্যদিকে ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী সেলিম সরকার একই আইনে করা সোনারগাঁ থানার মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে বর্তমানে কারাগারে আছেন  যার ফলে এই ইউপির বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক আতংক কাজ করছেই।
অপরদিকে সোনারগাঁ থানা ছাত্রদলের এই ইউনিয়নের অনেক নেতা কর্মীরাও একই কারণে ঘর ছাড়া।
থানা ছাত্রদল নেতা রিপন শিকদারও দীর্ঘদিন যাবত গৃহ ত্যাগ করে নিরুদ্দেশ ফেরারী দিন যাপন করছেন বিভিন্ন মামলার আসামী হয়ে।
এছাড়াও সদ্য জামিনে কারামুক্ত থানা ছাত্রদল নেতা কাজী হিমেলও মামলার আসামী হয়ে ঘর বাড়ি ছেড়ে বর্তমানে কোথায় অবস্থান করছেন তা সম্পর্কে তার পরিবারও অবগত নন।
বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলায় আসামী হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন থানা ছাত্রদলের আরেক নেতা আল আমিন অভিও।
গ্রেপ্তার এরাতে কখন কোথায় অবস্থান করছেন তা জানে না তার পরিবার ও পরিচিত অনেকেই।
এ ছাড়াও ইউনিয়ন বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম ও থানা ছাত্রদল নেতা সোহেল রানা,  মোঃ কাউসারসহ সাদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির প্রায় সকলেই মামলা হামলার ভয়ে গ্রেপ্তার এড়াতে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।
সকলেই প্রায় নিরুদ্দেশ ও ফেরারী জীবনে পরিবার পরিজন ছেড়ে  কে কোথায় অবস্থান করছেন তা জানা যাচ্ছে না কোনোভাবেই।
অথচ প্রত্যেকেই কোনো না কোনোভাবে দলীয় সব প্রোগ্রামেই অংশ গ্রহন করে যাচ্ছেন যথা সময়ে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।