মানবতার মুকুল কে তাঁর ৪৭ তম জন্মদিনে “ছায়া মানব” উপাধিতে ভূষিত করলেন ছাত্রনেতা ডিএম সালাউদ্দিন।

­মোঃ সজিব, বিশেষ প্রতিনিধি ভোলাঃ আজ ২৪ই এপ্রিল’১৯ ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আলী আজম মুকুলের ৪৭ তম জন্মদিন  । তিনি ১৯৭২ সালের ২৪ই এপ্রিল ধরণীর বুকে ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিনে খায়ের হাটের গঙ্গাপুরে জন্ম গ্রহণ করেন।

ছোট বেলা থেকেই তিনি সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি ও উনশত্তরের  মহানায়ক মেধাবী ছাত্রনেতা জনাব আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদের সান্নিধ্যে বড় হন। তখন থেকেই তাঁর আচার আচরণে মানবতার দৃষ্টি লক্ষ্য করা যায়। তাঁর রয়েছে রাজনৈতিক এক বর্ণাঢ্য জীবন। তাছাড়া তিনি উন্নয়নমূলক কাজের মাধ্যমে মানব সেবা করে যাচ্ছেন সর্বত্র।

তিনি  ২০১৪ সালের ৫ ই জানুয়ারির নির্বাচনের পর ভোলা-২ তথা বোরহানউদ্দিন ও দৌলতখানে ব্যাপক উন্নয়ন এবং জনসেবামুলক কাজ করে ইতিমধ্যেই সকলের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন।
ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আলী আজম মুকুল এমপি মহোদয়ের হাত ধরেই অসংখ্য উন্নয়নের বাস্তবায়ন হয়েছে। তিনি ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎতের শুভ উদ্ভোধন করেছেন এবং প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্দ্যুৎ পৌছে দিয়েছেন। গৃহস্থালি কাজে গ্যাস ব্যাবহারের ব্যাবস্থা করেছেন। মেঘনা-তেতুলিয়াসহ তিনি নদী ভিত্তিক এলাকায় নদী ভাঙ্গন রোধের জন্য প্রায় ৫৫১ কোটি টাকার ব্লক ও বেড়ীবাঁধের কাজ করেছেন। নদীর পাড়ে গৃহহারা জেলেদের জন্য বসত-ঘর তৈরী এবং গরীব জেলেদের জন্য ভাতার ব্যাবস্থা করেছেন।

বোরহানউদ্দিন পৌরসভায় প্রশস্ত-রাস্তা, আধুনিক ব্রীজ নির্মাণ ও ড্রেনের ব্যাবস্থা করেছেন। বোরহানউদ্দিনে আধুনিক লঞ্চ টার্মিনাল স্থাপন করেছেন। মা-শিশুর সু-চিকিৎসার জন্য নবাগত বোরহানউদ্দিনের কুঞ্জেরহাট বাজার সংলগ্ন উত্তরে ১০ শয্যা বিশিষ্ট “মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র” এবং  দৌলতখানেও হাসপাতাল শুভ উদ্ভোধন করেছেন। বয়স্কভাতা,বিধবাভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, মাতৃত্বকালীণ ভাতা ও প্রতিবন্ধীদের ভাতা প্রদানে অগ্রাধিকার রেখেছেন।

শিক্ষাক্ষেত্রে তিনি বিভিন্ন স্কুল ও কলেজ সরকারি করনে ভুমিকা রেখেছেন। উল্লেখ্য, সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় (বোরহানউদ্দিন), সরকারি আব্দুল জব্বার কলেজ (বোরহানউদ্দিন) এবং সরকারি আবি-আব্দুলাহ কলেজ (দৌলতখান)।

শিক্ষার পাশাপাশি বিনোদনের জন্য মেঘনা-তেতুলিয়া রিভার ইকো পার্ক করেন।
অতি দারিদ্র্য, গরিব-দুঃখী ও মেহনতি মানুষ গুলো দু-বেলা, দু-মুঠো আহারের সন্ধান পেয়েছে। বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান ও বেকারত্ব দূরীকরনে ব্যাপক ভুমিকা পালন করেন। এছাড়াও বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির, মাদরাসা,চিকিৎসা কেন্দ্র, স্কুল-কলেজ,রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ, সাকো-সেতু নির্মাণ করেছেন।

মানবতার সেবক আলী আজম মুকুলের উন্নয়নমূকল কর্মকান্ডে মুগ্ধ হয়ে  “ছায়া মানব” উপাধিতে ভুষিত করেন ঢাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা ডিএম সালাউদ্দিন।

তিনি মানুষের বিপদে আপদে মানবতার ডাল হিসেবে  এগিয়ে এসেছেন। তিনি ইতিমধ্যেই মানব সেবা করে মানবতার সুখ্যাতি অর্জন করেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।