শিক্ষকদের বেতন নিয়ে করুচিপূর্ণ মন্তব্য, সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়

সকালবিডি টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ১১ঃ৪৭ মিনিটে নারায়ণগঞ্জ এর অন্যতম ফেসবুক গ্রুপ নারায়নগঞ্জস্থান নামক অনলাইন ভিত্তিক গ্রুপে Yeasin Dewan নামের একটি ফেসবুক একাউন্ট থেকে শিক্ষকদের বেতন ভাতা দেওয়া নিয়ে পোষ্ট করা হয়। পাঠকদের সুবিধার্থে পোস্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

“শিক্ষকদের বেতন দেওয়া যদি বন্ধ থাকতো তাহলে এতদিন স্কুল-কলেজ খোলার জন্য শিক্ষকরাই আজ আন্দোলন করতো।”

তার প্রেফাইল লিংকঃ https://www.facebook.com/YeasinBD1998

তার পোষ্টে সহমত জানিয়ে Md Shaon Amhed Shaikot বলেন মাষ্টার রা তো বাসায় বসে বেতন পাচ্ছে, আর প্রাইভেট আর বেশি পড়াতে পারছে, তাইতো তারা নাকে তেল দিয়ে ঘুমাচ্ছে।

তার প্রেফাইল লিংকঃ
https://www.facebook.com/mdshaonahmed.shaikot.1

উক্ত পোস্টের প্রতিবাদ সরূপ একজন কমেন্ট করে লিখেছেনঃ ঠিক বলেছেন ভাই.. আপনার পোস্টের পুরো কমেন্ট গুলো পড়লাম.. একজন বললেন শিক্ষক দের বেতন হাফ করে দেবার কথা.. আপনি কি তাহলে আসলেই জানেন যে শিক্ষকদের তাহলে ফুল বেতন দেয়া হচ্ছে!!! আমাকে ওই স্কুলের ঠিকানা টা দেবেন.. আমি জয়েন করবো.. স্কুল খুলবে কি খুলবে না সেটা শুধু আমাদের সরকার নির্ধারণ করবেন.. আমরা কেনো? আপনাদের বাচ্চার শিক্ষার দায়িত্ব নিতে পারি কিন্তু আপনার বা আপনার পরিচিত কোনো একজনের কারণে অন্য একটা বাচ্চা অসুস্থ হবে সেটার দায় ভার শিক্ষক বা স্কুল প্রতিষ্ঠান কেনো নিবে? একজনের একটা বাচ্চা অসুস্থ হবে সেই আপনি বা আপনার মতই একজন বলে বসবেন বা হুমকি দিয়ে বসবেন যে কেনো স্কুল খুললো.. আপনি সহ প্রত্যেকেই যার যার বাচ্চার দায়িত্ব নিয়ে আন্দোলন করুন যে কারো কোনো ক্ষতি হলে সরকার, স্কুল প্রতিষ্ঠান দায়ী থাকবে না, সরকার নিশ্চয়ই স্কুল খুলে দিবে..

আর একটা কথা আমরা যারা অনলাইন ক্লাস নেই তাদের কত টা পরিশ্রম করতে হয় সেই ধারণা আপনার আর আপনার মত লোকদের নেই.. কারণ আপনাদের ধারনা আমরা শিক্ষকরা বসে বসে খাই.. ভাই আমার বাসার ঠিকানা সহ আমার পরিচিত আরো কয়েকজন শিক্ষকের বাসার ঠিকানা দিয়ে দেবো আপনাকে.. মাসের বাজার টা পাঠিয়ে দেবেন আর বাড়ি ভাড়া টা ও.. তাহলে একটু relax মুডে বসে খেতে পারবো..
Alsaba Adnan
Faisal Ahmed
Panna Saha দেখেন একটু.. আমরা কত আরাম করে বসে বসে খাচ্ছি..

এ ছাড়াও সাজিদুর রহমান লিখেছেনঃ
সব টিচার এভাবে বেতন পাচ্ছে না। ভার্সিটি থেকে শুরু করে স্কুলে অনেক জায়গায় টিচারদের বেতন কমানো সহ ছাটাই হয়েছে।
আন্দোলনের কথা বললেই হয় না। ছাত্রদের পক্ষে যতটা সহজ চাকরিজীবীদের ক্ষেত্রে ততোটা না…

ঐ পোস্ট এবং পোস্টের কমেন্টের স্ক্রিনশট দ্রুত ছড়িয়ে পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, সাধারণ শিক্ষার্থী, শিক্ষানুরাগী মানুষ বিরূপ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন, এইসকল করুচিপূর্ণ বক্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে পোস্ট করেছেন অনেকে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।