ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলায় এবার ইজতেমা

মোঃসজিব, ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার চরফ্যাশন উপজেলায় প্রথম বারের মত শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্ব ইস্তেমা। পবিত্র হজ্বের পর মুসলিম উম্মার দ্বিতীয় বৃহত্তর জামাত হল তাবলিগ জামাতের ইস্তেমা। তাবলিগ অর্থ হলো প্রচার বা প্রসার আর জামাত মানে একত্রিত হওয়া। আল্লাহ তাআলার দ্বীন ও রাসূলের সুন্নাত দুনিয়াতে যাতে প্রতিষ্ঠিত হয় সেই লক্ষে বাংলাদেশে ঢাকার টঙ্গীতে তুরাগ নদীর তীরে প্রত্যেক বছর তাবলিগ জামাতের এই এস্তেমা অনুষ্ঠিত হয়। যা জন-সাধারনের কাছে বিশ্ব এস্তেমা নামে পরিচিত। জায়গার সংকুলান না হওয়ার কারনে এবং সাথীভাইদের সুবিধার্থে জামাতের আমির বা মরুব্বিদের পরামর্শক্রমে এই এস্তেমাকে দেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে প্রথম বর্ষে ৩২টি জেলা ঢাকার টঙ্গীর এস্তেমাতে এবং বাকি ৩২টি জেলা নিজ জেলার এস্তেমায় অংশ গ্রহণ করবে।
এবারের ভোলা জেলার ইস্তেমা চরফ্যাশন উপজেলার ৫নং ওয়ার্ড বিআর ডিবি টু দুলারহাট সরকে মৃধা হাউজিং প্রকল্প ময়দানে অনুষ্ঠিত হবে।
জানাযায় আগামী অক্টোবর মাসের ১১.১২ ও ১৩ রোজ বৃহঃপ্রতি, শুক্র ও শনিবারে আখেরি মুনাজাত।
ইস্তেমার ময়দান থেকে আমাদের ভোলা ক্রাইম নিউজ প্রতিবেদক জানিয়েছেন চরফ্যাসনে ইস্তেমার ময়দানের কাজ চলছে দ্রুতগতিতে।
ভোলা জেলার ইস্তেমা এবার চরফ্যাসনে অনুষ্ঠিত হবে, আগামি ১১,১২ ও ১৩ অক্টোবর চরফ্যাসন পৌরসভা ৫নং ওয়ার্ড বিআরডিবি (দুলারহাট সড়কে) মৃধা হাউজিং প্রকল্প মাঠে।
সাথীভাইয়ের সাথে কথা বলে জানা যায়, এবার এস্তেমাকে গিরে স্বাস্থ্যসম্মত প্রসাব খানার ব্যবস্থা রয়েছে। পাশাপাশি এস্তেমাকে কামিয়াবী বা সফল করার জন্য পৃথক পৃথক অজুখানা, গোসল খানা, রান্না জায়গা, ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প, ঔষুধ, এ্যামবুলেন্স ব্যবস্থা থাকবে এবং সেই সাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়ন থাকবে ইনশাআল্লাহ। শনিবার আখেরী মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে ভোলা জেলার এস্তেমা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।